নথুল্লাবাদে শ্রমিকদের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ, ৪টি মাহেন্দ্র ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বাসে যাত্রী উঠানো কেন্দ্র করে বরিশাল বাস শ্রমিক ও মাহেন্দ্র শ্রমিকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় চার মাহেন্দ্র শ্রমিক আহত হয়েছেন। সেই সঙ্গে চারটি মাহেন্দ্র ভাঙচুর করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১২ জুন) বিকেল ৪টার দিকে নথুল্লবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে এ ঘটনা ঘটে। হামলার পর প্রায় ঘণ্টাখানেক নথুল্লবাদ থেকে বিভিন্ন রুটে মাহেন্দ্র চলাচল বন্ধ ছিল।

আহত মাহেন্দ্র শ্রমিকরা হলেন- আশরাফ ফকির, আব্দুল মালেক, হারুন অর রশিদ ও রাজিব খান। তাদের মধ্যে দুইজনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
মাহেন্দ্র ও টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি লিটন মোল্লা জানান, বাস মালিক সমিতির অধীনে থাকা বরিশাল-বানারীপাড়া রুটে চলাচলকারী সেবা পরিবহনের বাস নতুন বাজার থেকে ছাড়ে। বাসগুলো নথুল্লবাদ বাস টার্মিনালে পৌঁছে নীতিমালা ভঙ্গ করে মাহেন্দ্র স্ট্যান্ডের পাশে এসে দাঁড়ায় এবং মাহেন্দ্র যাত্রীদের বাসে তুলে নেয়। ফলে মাহেন্দ্র শ্রমিকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। বিকেল ৪টার দিকে সেবা পরিবহন একই কাজ করলে মাহেন্দ্র শ্রমিকরা বাধা দেয়। একপর্যায়ে তদের সঙ্গে বাকবিতন্ডা হলে টার্মিনালের বাস শ্রমিকরা সংঘবদ্ধ হয়ে হামলা চালিয়ে স্ট্যান্ডে থাকা মাহেন্দ্রগুলো ভাঙচুর ও শ্রমিকদের বেধড়ক মারধর করে।

এ বিষয়ে জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি আফতাব হোসেন বলেন, যাত্রী তোলা নিয়ে বাস শ্রমিক ও মাহেন্দ্র শ্রমিকদের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়া হয়েছে।

বরিশাল মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মো. রকিবুজ্জামান জানান, তুচ্ছ বিষয় নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি হয়েছে। এ সময় কয়েকটি মাহেন্দ্র ভাঙচুর করা হয়েছে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।’’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here