হবিগঞ্জে মহাসড়কের বেহাল দশা

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জ অংশের বেহাল দশা। সড়কের বিভিন্ন অংশে ছোট বড় খানা-খন্দ ও গর্তের সৃষ্টি হয়ে মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। ফলে দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। সামান্য বৃষ্টিতেই গর্ত তলিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে জনগণ।

স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে মহাসড়কে সংস্কার না হওয়ায় এবং বিভিন্ন পয়েন্টে পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকার ফলে বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে সড়কটি।

জানা যায়, মাধবপুর-নবীগঞ্জের শেষ সীমানা শেরপুর পর্যন্ত প্রায় ৮২ কিলোমিটার মহাসড়ক হবিগঞ্জের সড়ক বিভাগের অধীনে রয়েছে। মাধবপুর পৌর এলাকা, শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রীজ পয়েন্ট, মিরপুর পয়েন্ট ও আউশকান্দি পয়েন্ট এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে খানাখন্দের। এছাড়াও এবারের ঈদ যাত্রা বির্বিঘ্ন করতে মহাসড়কে সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ।

স্থানীয় মোতাব্বির হোসেন কাজল জানান, দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার না হওয়ায় মহাসড়কের অধিকাংশ স্থানেই খানা-খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে প্রতিনিয়তই ওইসব এলাকায় দুর্ঘটনা ঘটছে। হচ্ছে প্রাণহানি। তাই সড়কটি দ্রুত সংস্কার করা প্রয়োজন।

ইউপি চেয়ারম্যান মো. রজব আলী জানান, হবিগঞ্জ জেলায় যত সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে তার বেশিরভাগই হচ্ছে মহাসড়কে। বৃষ্টির দিনে খানা-খন্দ পানিতে তলিয়ে থাকার কারণে যানবাহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনায় কবলিত হচ্ছে। তাই জনস্বার্থে মহাসড়কের খানা-খন্দগুলো ত্বরিতগতিতে সংস্কার করা না হলে তা আরও ভয়াবহ হতে পারে।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) হবিগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম জানান, এরইমধ্যে মহাসড়কের সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। আশা করছি পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগেই সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হবে। এছাড়াও প্রায় ১৮ কিলোমিটার রাস্তা নতুন করে তৈরি করা হচ্ছে। যাতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ কোটি টাকা।

ডিসি মাহমুদুল কবির মুরাদ জানান, পবিত্র ঈদুল ফিতর মুসলমানদের সবছেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। ঈদে প্রত্যেক মানুষ তার বাড়িতে আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে পালন করতে চায়। তাই এবারের ঈদযাত্রা মহাসড়কে নির্বিঘ্ন করতে যাথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। শুধু মহাসড়কই নয় জেলার বিভিন্ন উপজেলার সঙ্গে সংযুক্ত সড়কগুলোও সংস্কার করা হচ্ছে।

লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির জানান, এরইমধ্যে তিনি সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। সংস্কার কাজ দ্রুত সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here