বিশ্বকাপ থেকে আর্জেন্টিনাকে বহিষ্কার চায় ইসরাইল

স্পোর্টস ডেস্ক:রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে লিওনেল মেসিদের বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছে ইসরাইল ফুটবল ফেডারেশন।

আজ টেডি স্টেডিয়ামে গড়ানোর কথা ছিল আর্জেন্টিনা-ইসরাইল প্রীতি ম্যাচ। কিন্তু বিশ্বব্যাপী তীব্র সমালোচনা, নিরাপত্তা শঙ্কা ও ফিলিস্তিনের ঘোর আপত্তির মুখে দখলদার ইসরাইলের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ বাতিল করেছে আর্জেন্টিনা। এতে নাখোশ হয়ে ইসরাইল এ দাবি জানায়।

উল্লেখ্য, প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার স্থানটিতে নিরীহ, নিরপরাধ ফিলিস্তিনিদের গুপ্তহত্যায় ব্যবহৃত হতো। এখানে নির্বিচারে তাদের হত্যা করে ইসরাইল। ঐতিহাসিকভাবে স্টেডিয়াম ও সংলগ্ন এলাকা ফিলিস্তিনিদের দখলে থাকলেও জোরজুলুম করে তাদের বিতাড়িত করে বর্তমানে সেই অঞ্চল দখল করে রেখেছে দেশটি।

স্বাভাবিকভাবে শুরু থেকেই আপত্তি জানিয়ে আসছিল ফিলিস্তিন। এমন বিতর্কিত মাঠে ইসরাইলের সঙ্গে আর্জেন্টিনাকে না খেলার জন্য অসংখ্যবার অনুরোধ করে স্বাধীনতাকামী দেশটি। খেললে মেসির জার্সি-ছবি পোড়ানোর হুমকি দেন ফিলিস্তিনিরা। অবশেষে হুমকি-ধমকির মুখে সহিংসতা বৃদ্ধির আশংকায় ম্যাচটি বাতিল ঘোষণা করে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ)।

এতে বিজয়োল্লাস করে ফিলিস্তিন। একে ‘রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিজয়’ বলে উল্লেখ করেন ফিলিস্তিন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (পিএফএ) প্রধান জিব্রিল রাজৌব। ঠিক বিপরীত পথে হাঁটবে ইসরাইল তা অনুমেয়ই ছিল।

ইসরাইলি ফুটবল সংস্থার ভাইস প্রেসিডেন্ট রোতেম কামের বলেন, ফিলিস্তিনিরা একদম সীমারেখা অতিক্রম করে যাচ্ছে, তা হতে দেয়া যায় না। ফুটবল-সন্ত্রাসের মাধ্যমে ভয়ভীতি দেখিয়ে আর্জেন্টিনাকে ম্যাচটি বাতিল করতে বাধ্য করেছে তারা। ফিফার কাছে এর সুষ্ঠু তদন্ত চাই।

ইহুদি রাষ্ট্রটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যাভিগদর লেইবারম্যান বলেন, ইসরাইল বিদ্বেষীদের চাপের মুখে ম্যাচ বাতিল বড়ই হতাশার। এতে বিচক্ষণতার পরিচয় দেয়নি আর্জেন্টিনা। তারা আমাদের মৌল ভিত্তিতে আঘাত হেনেছে। আমাদের জন্য ধ্বংসাত্মতক বার্তা বয়ে এনেছে। আমরা তাদের সঙ্গে নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here