‘লক্ষ্য অর্জনের পরেও শিক্ষার্থীরা রাস্তায় থাকলে লক্ষ্যভ্রষ্ট হবে’

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলছেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের লক্ষ্য অর্জনের পরেও শিক্ষার্থীরা রাস্তায় থাকলে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে যাবে। আজ শুক্রবার বিকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এসময় সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করে তিনি।

স্বাস্থ্যামন্ত্রী বলেন, ১৪ দল মনে করে—এই ধরনের হত্যাকাণ্ডের দ্রুত বিচার করে খুনিদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। আন্দোলনের প্রতি ১৪ দল সমর্থন আছে উল্লেখ করে নাসিম বলেন, ‘এই সড়ক দুর্ঘটনার বিরুদ্ধে ও হত্যার বিচারের দাবিতে সাধারণ কিশোর ছাত্রছাত্রীরা রাস্তায় নেমেছে। স্বতঃস্ফুর্ত এই আন্দোলনের প্রতি আমরা সম্মান জানাই, শ্রদ্ধা জানাই।

তাদের প্রতি আমাদের সম্পূর্ণ সহানুভূতি রয়েছে। কারণ, দীর্ঘ দিনের এই সড়ক অব্যস্থাপনার বিরুদ্ধে তারা যে প্রতিবাদ করেছে, তা অবশ্যই যুক্তি সঙ্গত। এই ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত, আমি মনে করি এর বিচার হওয়া উচিত।’
মন্ত্রী বলেন, ‘যে লক্ষ্যে কিশোররা আন্দোলন করেছে, তা অর্জিত হয়েছে। লক্ষ্য অর্জিত হওয়ার পরে আর কোনোভাবেই রাস্তায় থাকার কোনও অর্থ হয় না। আমরা অনুরোধ করবো—আমাদের ছেলেমেয়েরা সবাই যেন এখন ঘরে ফিরে যায়, ক্লাসে ফিরে যায়।

এব্যাপারে অভিভাবকদেরও অনুরোধ করবো—কারণ, লক্ষ্য অর্জনের পরেও যদি তারা বাইরে থাকে, তাহলে লক্ষ্য অর্জন শুধু নয়, এই আন্দোলনের লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে যাবে। এটা মনে রাখতে হবে—যখন লক্ষ্য অর্জিত হয়ে যায়, তখন ক্ষান্ত দিতে হয়। না হলে লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তিনি বলেন,‘শিক্ষার্থীরা নয় দফা দাবি দিয়েছিল। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নয় দফা দাবি মেনে নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন। পরিবহন আইন পাসের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন,‘আমরা বিশ্বাস করি,প্রধানমন্ত্রী অন্য যে কোনও সমস্যার মতো এই সমস্যাও দ্রুত সমাধান করবেন।

১৪ দলের মুখপাত্র বলেন,‘রোদে বৃষ্টিতে তারা যে প্রতিবাদ করেছে, অনেক ক্ষেত্রে আমাদেরকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। কোথায় অব্যবস্থাপনা অছে, কোথায় আমাদের দুর্বলতা আছে। এটি অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, আমাদের অবশ্যই স্বীকার করতে হবে। আমাদের স্বীকার করতে লজ্জা নাই, দ্বিধা নাই। আমাদের সরকারের আমলে কিছু কিছু অব্যবস্থাপনা ছিল, আর এটা দীর্ঘদিনে।

নৌমন্ত্রী পদত্যাগ করবেন কীনা জানতে চাইলে নাসিম বলেন, ‘নয় দফার মধ্যে একটি দাবি ছিল নৌমন্ত্রীর ক্ষমা চাইতে হবে। তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন, ক্ষমা চেয়েছেন। এখন আমার কাছে মনে হয়— এটা রাজনৈতিক দাবি উঠেছে। আন্দোলনের উদ্দেশ্য এটা ছিল না। কারণ, পদত্যাগের মাধ্যমে এর সমাধান হবে না। আইন করে তা কঠোরভাবে প্রয়োগ করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here