ধুলিয়াখাল-মিরপুর সড়ক দেখার কেউ নেই

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে হবিগঞ্জের ধুলিয়াখাল-মিরপুর সড়ক। ছোট ছোট খানাখন্দগুলো এখন বড় বড় গর্তে পরিণত হয়েছে। দিনদিন রাস্তাটি বেহাল দশায় পরিণত হচ্ছে।এ যেন দেখার কেউ নেই। এ কারণে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা দুর্ভোগে পড়েছে।রাস্তায় পানি জমে থাকা পানিতে পা পিছলে পড়ে যাচ্ছে। কাদায় ভিজে যাচ্ছে স্কুলের ড্রেস।

জানা যায়, বাহুবল উপজেলা,মিরপুর এলাকাসহ আশপাশের লক্ষাধিক মানুষের চলাচল করে এ সড়ক ধরে।হবিগঞ্জ শহরের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র রাস্তা হচ্ছে এটি। প্রায় ১০ কিলোমিটারের এ সড়কটি যেনো পথচলার গলার কাটা হয়েছে দাড়িয়েছে সবার।

এছাড়াও প্রতিনিয়তই ছোট-বড় দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন অনেকেই।বিশেষ করে বৃষ্টির দিনে ছোট ছোট গর্তে জমে থাকে হাঁটুসমান পানি। কারণে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ পোহাতে হয় যাত্রীদের।

হবিগঞ্জ সরকারি বৃন্দাবন কলেজের ছাত্রী তমা আক্তার ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন দীর্ঘদিন ধরেই সংস্কার কাজ হয় না সড়কটির। ইট উঠে গেছে। ফলে দিনদিন গর্তগুলো ছোট থেকে আরো বড় হচ্ছে। আর এতে বাধার মুখে পড়েছে সাধারণ মানুষদের পথ চলাচল।

ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম হিরো জানান, মিরপুর-ধুলিয়াখাল সড়কটি বেশ কয়েকটি ইউপির সঙ্গে সংযুক্ত। এ কারণে কোন জনপ্রতিনিধির পক্ষেই একা একা কাজ করানো সম্ভব না।তাই সড়কটি মেরামত করতে বিলম্ব হচ্ছে।

সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমদুল হক জানান, মিরপুর ধুলিয়াখাল সড়কটির অবস্থা সম্পর্কে আমার জানা আছে। উপজেলা পরিষদে পর্যাপ্ত পরিমাণ বরাদ্ধ না থাকার কারণে এখন কাজ করানো সম্ভব হচ্ছে না। তবে আশা করি দ্রুতই এ সড়কের মেরামতের কাজ শুরু হবে।

হবিগঞ্জ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) সহকারী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে তারাও অবগত রয়েছেন। তবে অর্থ বছরের শেষ সময় হওয়ার কারণে এখনও আর এ সড়কে কাজ করা সম্ভব নয়। আগামী বছরের শুরুতে এ সড়কে মেরামতের কাজ শুরু হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here