উধাও গনপরিবহন: দুর্ভোগে মানুষ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ ছুটির দিনে সাধারণত সড়কে গনপরিবহণের সংখ্যা কম থাকে। তবে আজ দেখা যাচ্ছে ভিন্ন চিত্র। রাজধানীর অভ্যন্তরীণ রুটগুলোতে যাত্রীবাহী বাস নেই বললেই চলে।

আজ শুক্রবার সকাল থেকে এ চিত্র দেখা গেছে। সড়কে রিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস চলাচল করলেও । আক্ষরিক অর্থে দু-একটি বাস ছাড়া তেমন গণপরিবহন দেখা যায়নি। এর ফলে দুর্ভোগে পড়েছে সাধারণ মানুষ। শত শত মানুষক পায়ে হেটে চলাচল করতে দেখা গেছে।

রাজধানীর রোকেয়া সরণি, মিরপুর রোড, সাতমসজিদ রোড, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, প্রগতি সরণি, এলিফ্যান্ট রোড ঘুরে  দেখা যায়নি কোনো গণপরিবহন।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলার বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। এ ছাড়া আহত হয় বেশ কয়েকজন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে শিক্ষার্থীরা। এরপর থেকে ঢাকার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোয় বাস চলাচল একেবারেই কমে যায়। এমনকি আন্তজেলা বাস চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়।

গতকাল শিক্ষার্থীদের ডাকে সারা দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় সরকারি সিদ্ধান্তে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকলেও বৃষ্টি মাথায় নিয়ে সারা দেশে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামে এবং নিরাপদ সড়কের দাবি তোলে। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা নয়টি দাবি করেছে। তাদের সব দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালও বলেছেন, শিক্ষার্থীদের সব দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। এখন তাদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার উচিত বলে জানান তিনি।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারের সাথে দেখা করেন ও নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ২০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here