দুই শিক্ষার্থী নিহত, তিনদিন পর শিক্ষামন্ত্রীর শোক

নিজস্ব প্রতিনিধিঃরাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত ও কয়েকজন শিক্ষার্থীর আহত হওয়ার ঘটনার তিনদিন পর শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।

তিনি এমন এক সময় শোক জানিয়েছেন, যেসময় কোমলমতি শিশুরা এই ‘হত্যার’ প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে। আটকে দিচ্ছে উল্টোপথে চলা মন্ত্রীর গাড়িও। বলতে গেলে পুরো রাজধানীই স্থবির হয়ে পড়েছে। সংশ্লিষ্টরা দফায় দফায় বৈঠক করে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার আশ্বাস দিচ্ছেন।

গত রবিবার দুপুরে বিমানবন্দর সড়কের জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভারের গোড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের জাবালে নূর পরিবহন চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়, আহত হয় আরও ১৪ জন। দুর্ঘটনার পর পরিবহন শ্রমিক নেতা নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের হেসে হেসে কথা বলা ও তুচ্ছ তাচ্ছিল্যের অঙ্গভঙ্গীর পর ক্ষোভে রাস্তা দখলে নেয় শিক্ষার্থীরা।

বুধবার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এক সভায় তিনি শিক্ষা পরিবারের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা ও সহমর্মিতা জ্ঞাপন করেন প্রকাশ করেন মন্ত্রী।

সভায় শিক্ষাসচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. মাহাবুবুর রহমানসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দুর্ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা এবং সড়ক পরিবহনকে সুশৃঙ্খল ও নিরাপদ করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন। সে অনুযায়ী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে এবং দোষীদের গ্রেফতার করেছে। সংশ্লিষ্ট দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির বিষয়ে আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণ অব্যাহত আছে।

সভায় মন্ত্রী শোকার্ত কোমলমতি শিক্ষার্থীদেরকে শোক সংবরণ করে শান্ত থাকা ও ধৈর্য ধারনের আহ্বান জানান। তিনি সংশ্লিষ্ট সকল শিক্ষক, অভিভাবক ও অন্যান্যদেরকে শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে শিক্ষা কার্যক্রমে সহয়োগিতা করার জন্য ভূমিকা রাখার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here