বেয়াইনের সঙ্গে কথা বলায় মাথা ন্যাড়া করে-আলকাতরা লাগিয়ে দুই যুবককে গ্রাম ছাড়া

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:পটুয়াখালীর গলাচিপায় বিয়ে বাড়িতে বেয়াইনের সঙ্গে কথা বলায় দুই যুবককে মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা লাগিয়ে গ্রাম ছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে এক মেম্বারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্তের শাস্তি না হলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

মঙ্গলবার ঐ উপজেলার চর বাংলা গ্রামের নূরু সরদারের মেয়ে মুক্তার বিয়ের অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার রাতে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। অভিযুক্ত মো. সায়েম গাজী ঐ উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুরে বিয়ের খাবার খাওয়ার পর গ্রামের রাস্তায় হাঁটতে গিয়ে এক বেয়াইনের সঙ্গে দেখা ও কথা হয় তুহিন ও কালু নামে দুই যুবকের। পরে বিয়ে বাড়িতে বিষয়টি জানাজানি হলে মেয়ের আপন ভাই ও স্বজনরা ঐ দুই যুবককে ধরে স্লুইসগেট বাজারেমেম্বার সায়েম গাজীর কার্যালয়ে নিয়ে যান। সেখানে জনসম্মুখে তুহিন ও কালুর মাথা ন্যাড়া করে ও আলকাতরা লাগিয়ে গ্রাম ছাড়া করেন। ঘটনার পর থেকে লোকলজ্জায় পালিয়ে ছিলেন ঐ দুই যুবক।

ভুক্তভোগী কালুর বাবা মো. লিটন গাজী বলেন, আমার ছেলে এমন কি অপরাধ করেছে- যার কারণে মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা লাগিয়ে দিয়েছে? লজ্জায় ওরা আত্মহত্যা করতে চাচ্ছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

চরবিশ্বাস ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জেল হোসেন বাবুল মুন্সী বলেন, ঐ দুই যুবক বিয়ের বরযাত্রী ছিল। বিয়ে বাড়িতে এক মেয়ের সঙ্গে তাদের কথা বলতে দেখে স্থানীয়রা। এ বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে তাদের ধরে মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া হয়েছে। এটা ঠিক হয়নি।

গলাচিপা থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here