কলেজশিক্ষকের হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন করল প্রতিপক্ষ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃকুষ্টিয়ার সদর উপজেলায় ধারালো অস্ত্রের কোপে কলেজশিক্ষকের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ মে) বিকেলে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে একই দিন দুপুরে উপজেলার জিয়ারখী ইউনিয়নের বংশীতলা নতুন সেতুর ওপর এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষকের নাম তোফাজ্জেল হোসেন। তিনি বাঁশগ্রামের বাসিন্দা এবং বাঁশগ্রাম আলাউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক।

আলাউদ্দিন আহম্মেদ ডিগ্রি কলেজে ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক আলী হোসেন বলেন, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে ২০ থেকে ২৫ জন তার ওপরে হামলা চালায়। কিন্তু কি কারণে তার ওপর এই হামলা করা হয়েছে তা আমরা এখনও পর্যন্ত জানতে পারিনি।

এ বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষ হামিদুল ইসলাম বলেন, আমাদের কলেজের সহকারী অধ্যাপক তোফাজ্জেল বিশ্বাসকে কে বা কারা ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। কি কারণে কে বা কারা তাকে আক্রমণ করেছে তা এখনও পর্যন্ত জানা সম্ভব হয়নি।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আশরাফুল আলম বলেন, হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকরা তাকে চিকিৎসা দিচ্ছেন।

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, পূর্ব বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ঘটনায় এখনও কোনো মামলা হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here