মৃত্যুপথযাত্রীর পকেট থেকে হাতিয়ে নিলেন টাকার বান্ডিল, ভিডিও ভাইরাল

পিরোজপুর প্রতিনিধি:কুড়িয়ে পাওয়া বিশাল অঙ্কের অর্থ ফেরত দিয়ে, কিংবা মৃত্যুপথযাত্রীকে সহযোগিতা করে বিভিন্ন সময়ে আলোচনায় এসেছেন অনেকে। তবে এবার পিরোজপুরে ঘটেছে ঠিক উল্টো ঘটনা। জেলার সদর হাসপাতালের শয্যায় মৃত্যুপথযাত্রী এক শিক্ষকের পকেট হাতিয়ে টাকা নেয়ার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, রাস্তায় দুর্ঘটনায় আহত এক শিক্ষককে হাসপাতালে নিয়ে এসে তার পকেট থেকেই ৫০ হাজার টাকা
আত্মসাৎ করেছে এক অটোরিকশা চালক। তবে প্রযুক্তির কল্যাণে এ টাকা সে হজম করতে পারেনি। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে থাকা সিসিটিভি ফুটেজে টাকা নেয়ার দৃশ্য ধরা পড়ায় তা ফেরত দিতে হয়েছে ওই চালককে।

গত শুক্রবার (২৭ মে) ঘটনাটি ঘটে। সেদিন সোয়া ৩টার দিকে পিরোজপুর শহরের করিমুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কৃষি শিক্ষক মিলন কৃষ্ণ মজুমদার নিজের মোটরসাইকেলে করে একটি জমি ক্রয়ের জন্য টাকা বায়না দিতে শহরের আফতাবউদ্দিন কলেজের দিকে যাচ্ছিলেন। পিরোজপুর পৌরসভার সামনে পৌঁছার পর বিপরীত দিক থেকে আসা অন্য একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে মাথায় মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হন তিনি।

এরপর সেখান থেকে তাকে অন্য একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষক গৌতম মালাকার উদ্ধার করে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাযোগে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। এ সময় মিলনের চিকিৎসায় হাসপাতালের কর্মচারীদের সার্বিক সহযোগিতা করছিল হলুদ গেঞ্জি ও লুঙ্গি পরিহিত সদর উপজেলার শংকরপাশা গ্রামের অটোরিকশা চালক মিন্টু। এমনকি মিলনের পকেট থেকে বের করা মানিব্যাগ ও মোবাইল ফোনও গৌতমের কাছে জমা রাখে সে। এরই এক ফাঁকে গৌতম পাশে থাকা অবস্থায় মিলনের ডান পকেট থেকে টাকার একটি বান্ডিল বের করে তা নিজের লুঙ্গির মধ্যে লুকিয়ে সেখান থেকে সটকে পড়েন মিন্টু।

মিন্টুর পরিচয় জিজ্ঞেস করার পর তিনি দ্রুত জরুরি বিভাগের কক্ষটি ত্যাগ করে বলে জানান সেখানে থাকা দায়িত্বরতরা। তবে ভিড়ের মধ্যে ছোটখাটো চুরির ঘটনা ঘটলেও, এ ধরনের ঘটনা হাসপাতালে প্রথম ঘটেছে বলে জানান তারা।

এ ঘটনার পর সিসিটিভির ফুটেজ দেখে মিন্টুকে শনাক্তের পর পুলিশ চুরি হওয়া টাকা উদ্ধার করেছে বলে জানান করিমুন্নেসা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. জাহিদুল ইসলাম। তবে মানুষের বিপদের সময়ও যারা এ ধরনের অপকর্ম করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত বলে জানান তিনি।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি আবু জাফর মো. মাসুদুজ্জামান জানান, চুরি হওয়া টাকা উদ্ধার হয়েছে। এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দুর্ঘটনায় আহত শিক্ষক মিলন পরের দিন শনিবার খুলনায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার স্ত্রী একজন স্বাস্থ্যকর্মী এবং তাদের তিন মেয়ে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে বাস করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here