সুইসাইড নোটে লেখা ছিল ‘আমারে মাফ কইরা দিয়ো সবাই, আল্লাহ হাফেজ’

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:শরীয়তপুরের নড়িয়ায় চিরকুট লিখে রিয়া ঢালী নামে ১৯ বছর বয়সী এক গৃহবধূ গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

শুক্রবার সকালে নড়িয়া পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ঢালীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রিয়া একই গ্রামের নান্নু ঢালীর মেয়ে ও একই উপজেলার ভুমখারা ইউনিয়নের কালাইবাজার এলাকার কামাল ফকিরের স্ত্রী।

স্বজনরা জানান, প্রায় এক বছর আগে আপন খালাতো ভাই কামাল ফকিরের সঙ্গে রিয়ার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের আগে থেকেই মালয়েশিয়া থাকতেন কামাল। শুরু থেকেই শাশুড়ি আর ননদের খারাপ ব্যবহার চলছিল।

দুই মাস ধরে বাবার বাড়িতে থাকছেন রিয়া। বাবা সব জানার পর রিয়াকে শ্বশুরবাড়ি আর যেতে দেবেন না বলে সিদ্ধান্ত নেন। এরপর তিনি মেয়েকে পড়াশোনা করার জন্য নড়িয়া সরকারি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তি করিয়ে দেন। এভাবে চলছিল রিয়ার জীবন।

দুদিন আগে রিয়ার শাশুড়ি ও ননদ কহিনুর বেগম এসে ‘কেন যাবে না তাদের বাড়ি’ সে কথা বলে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে চলে যান। আর সেই মানসিক চাপ সইতে না পেরে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে গোসলখানার চালের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন রিয়া।

রিয়ার বাবা নান্নু ঢালী বলেন, আমার মেয়েকে শাশুড়ি ও ননদ বিভিন্নভাবে অত্যাচার করতেন। আমি শুনে মেয়েকে আর শ্বশুরবাড়ি দেব না বলে কলেজে ভর্তি করে দেই। বৃহস্পতিবার রিয়ার শাশুড়ি ও ননদ এসে অনেক বাজে ভাষায় গালাগাল করে গেছেন। আমি বাড়ি ছিলাম না। শুক্রবার সকালে আমার মেয়ে এ কাজ করল।

নড়িয়া থানার ওসি মাহবুব আলম বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here