রাজবাড়ীতে আ.লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সমাবেশ, কঠোর অবস্থানে পুলিশ

মিঠুন গোস্বামী, রাজবাড়ী : রাজবাড়ীতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পাল্টাপাল্টি সমাবেশ কে কেন্দ্র করে দুই দলের উত্তেজনা দেখা দিলে কঠোর অবস্থান নেয় জেলা পুলিশ। বৃহস্পতিবার ( ২৬ মে ) বিকাল ৩ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে করা কুটুক্তি ও উন্নয়নে ব্যাঘাত ঘটানোর প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিবাদ সমাবেশ।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাসট্রিজের সভাপতি কাজী ইরাদত আলীর নির্দেশনায় ওই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি হেদায়েত আলী সোহরাব, প্রফেসর ফকরুজ্জামান মুকুট, রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র আলমগীর শেখ তিতু, সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এ্যাডভোকেট সফিকুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সফি, কাজী টিটু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান হাফিজ, জেলা ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি জাকারিয়া মাসুদ রাজীব প্রমুখ বক্তৃতা করেন। এর আগে শহরের মোড়ে মোড়ে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দেন ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা কর্মীরা। যা নেতৃত্বে ছিলেন যুবলীগ নেতা নুরুজ্জামান মিয়া সোহেল, গোলাম মালেক রিংকু ও মোঃ ফিরোজ বিশ্বাস।

অপরদিকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপি। এ সময় বিএনপির সদস্য ও চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব জহিরুল হক শাহজাদা মিয়া, জেলা বিএনপির আহবায়ক এ্যাডভোকেট লিয়াকত আলী বাবু, সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট কামরুল আলম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ হারুন, যুগ্ম আহবায়ক রেজাউল করিম শিকদার পিন্টু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান লিখন, ছাত্রদলের আহবায়ক আরিফুল ইসলাম রোমান বক্তৃতা করেন।

এদিকে কর্মসুচীকে ঘিরে যাতে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে জন্য বাড়তি পুলিশ সদস্য মোতায়েন করে জেলা পুলিশ।

রাজবাড়ী থানার ওসি তদন্ত ইফতেফারুল ইসলাম প্রধান বলেন, দুই দলের কোন নেতাকর্মী যাতে অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটাতে পারে সেজন্য জেলা পুলিশ পর্যাপ্ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করে। অবশেষে শান্তিপুর্নভাবেই শেষ হয় কর্মসুচী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here