বাবুগঞ্জে আলোকিত মানুষ বাবুগঞ্জের আলোকিত কন্ঠ পত্রিকার প্রধান উপদেষ্টা এ এস মাহমুদ

বিশেষ প্রতিনিধি: বাবুগঞ্জের কৃতিসন্তান আলোকিত মানুষ মাসিক বাবুগঞ্জের আলোকিত কন্ঠ পত্রিকার প্রধান উপদেষ্টা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাবেক অতিরিক্ত সচিব আব্দুস সালাম মাহমুদ।

আব্দুস সালাম মাহমুদ বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে ১৯৫৭ সালে ২৮ শে অক্টোবর জন্ম গ্রহন করেন (এসএসসি সনদ অনুযায়ী) । তাঁর পিতা মুনশী আয়নাল উদ্দিন মিয়া ও মাতা মোসাম্মৎ আছিয়া খাতুন ।

প্রাথমিক শিক্ষা নিজ গ্রামে সম্পন্ন করে ১৯৭২ সালে বাবুগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ,১৯৭৪ সালের সরকারি বি এম কলেজ থেকে এইচএসসি ,১৯৭৭ সালে একই কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক এবং ১৯৭৮সালের স্নাতকোত্তর পাস করেন। এছাড়া ২০০৭সালে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ থেকে ব্যবসা প্রশাসনে প্রেসিডেন্ট গোল্ড মেডেল পেয়ে মাস্টার্স পাস করেন।

চাকরি জীবনে প্রবেশ করেন পাবনা ক্যাডেট কলেজের একাউন্টস অফিসারের দায়িত্ব পালন করার মাধ্যমে।
অবশ্য এর আগে তিনি কিছুদিন রুপালী ব্যাংকে চাকরি করেছেন।

এছাড়াও তিনি বরিশাল ক্যাডেট কলেজ, মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজ ,ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজের এর প্রভাষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এরপর বিসিএস ১৯৮৪ ব্যাচে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে ১৯৮৬ সনে প্রশাসন ক্যাডারে যোগদান করেন।তিনি কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার ইউএনও এবং বগুরা জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের দায়িত্ব পালনসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে চাকরি করেন। আন্তর্জাতিক সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন ইউএসএ এর প্রোগ্রাম অ্যাডভাইজার হিসেবে লিয়েনে পাঁচ বছর কাজ করেন ।

সর্বশেষ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন । সরকারি চাকরি থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে ট্রেজারার এবং ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ে রেজিস্ট্রার এর দায়িত্ব পালন করেন।

বর্তমানে তিনি সিআরএস নামে একটি আন্তর্জাতিক সংস্থায় পরামর্শক হিসেবে কাজ করছেন।

পারিবারিক জীবনে তাঁর সহধর্মিণী প্রফেসর ড. শামসুন নাহার বিসিএস সাধারন শিক্ষা ক্যাডারের ১৯৮৫ ব্যাচের একজন সদস্য। ক্যাডার সার্ভিসে যোগদানের পূর্বে তিনি ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজে অধ্যাপনা করেছেন।তিনি ইডেন মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে ২০২০ সালে অবসর গ্রহন করেন।

দুই পুত্র সন্তানের মধ্যে বড় ছেলে
ড. আশিক মাহমুদ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার । ছোট ছেলে আসিফ মাহমুদ এমটিও পদে ঢাকা ব্যাংকে কর্মরত রয়েছেন।

ব্যক্তি জীবনে তিনি একজন সৎ নিষ্ঠাবান মানুষ সঠিক নীতিতে সর্বদা অটল এবং এলাকার মানুষের কাছে নিবেদিতপ্রাণ হিসেবে পরিচিত। সরকারী সহায়তায় তিনি এলাকার স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার ভবন নির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। চাকুরীজীবনে তিনি সকলের দুখ দুর্দশার কথা মনোযোগ সহকারে শুনতেন এবং সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতেন। মানুষের উপকার করা ছিল তাঁর একটি ব্রত।

অবসর জীবনে মাসিক আলোকিত কন্ঠ পত্রিকার পরিচালনা পর্ষদের প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে সমাজসেবামূলক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন। মহামারী করোনাভাইরাস চলাকালে আলোকিত কণ্ঠ পরিচালনা পরিষদের ব্যানারে জনসচেতনামূলক লিফলেট বিতরণ ,মাস্ক বিতরণ , অসহায় হতদরিদ্র সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, করোনায় মানুষের অক্সিজেন সংকট দেখা দেয়ায় বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা প্রদান এবং শীতবস্ত্র বিতরণের মাধ্যমে এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজে অবদান রেখে মানুষের সমাদৃত হয়ে আছেন । এছাড়া নিজ এলাকায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে মসজিদ ও মাদ্রাসা পরিচালনায় সহায়তা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here