ছাত্র-ব্যবসায়ী সংঘর্ষ : সাংবাদিকদের পিটিয়েছেন দোকানকর্মীরা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃরাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় সংঘর্ষের খবর সংগ্রহ করতে যাওয়া সাংবাদিকদের পিটিয়েছেন নিউমার্কেটের দোকানের কর্মচারীরা। তাদের অভিযোগ, ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষ নিয়ে সত্য তথ্য প্রকাশ করছেন না সাংবাদিকরা।

সোমবার দিবাগত রাতে নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সংঘর্ষ বাধে। রাত ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত সংঘর্ষ চলে। এরপর মঙ্গলবার সকালে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আবারও সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

পরিস্থিতি সামাল দিতে গতকাল রাতে বিপুল পুলিশের উপস্থিতি থাকলেও আজ দুপুর পর্যন্ত কাউকে নিউমার্কেট এলাকায় দেখা যায়নি। সংঘর্ষের কারণে রাজধানীর ব্যস্ত সড়ক মিরপুর রোডে যান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ আছে।

সংঘর্ষের খবর সংগ্রহ করতে আসা বিভিন্ন ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের অন্তত চারজন সাংবাদিক ও ক্যামেরাপারসনকে পেটাতে দেখা গেছে। তাদের মধ্যে আরটিভির ক্যামেরাপারসন সুমন দে’সহ সময় টিভি ও এসএ টিভির দুই সাংবাদিক রয়েছেন।

হামলার শিকার অন্যজন একজন ফটোসাংবাদিক। তাঁকে নীলক্ষেত মোড় থেকে ধাওয়া দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের দিকে নিয়ে যান দোকানকর্মীরা।

সাংবাদিকদের ওপর হামলার বিষয়ে নিউমার্কেটের এক ব্যবসায়ী বলেন, যে সাংবাদিকেরা সত্য কথা লেখেন না, তাদের চলে যেতে বলা হচ্ছে। কাউকে মারধর করা হচ্ছে না। বেলা একটায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সংঘর্ষ চলছিল।

আজ সকাল থেকে শুরু হওয়া সংঘর্ষে দুই পক্ষেরই বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। ঢাকা কলেজের ছাত্রদের একটি অংশ কলেজের ছাদে, আরেকটি অংশ চন্দ্রিমা মার্কেটের সামনে অবস্থান নিয়েছে। অন্যদিকে নিউমার্কেট ছাড়াও আশপাশের অন্যান্য মার্কেটের ব্যবসায়ীরা নিউমার্কেট, রাফিন প্লাজা, বলাকা সিনেমা হল ও গাউছিয়া মার্কেটের সামনে অবস্থান নিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here