স্কুলে ভর্তির ২০০ টাকা না দেওয়ায় অভিমান, অবশেষে প্রাণ দিল অনিমা

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার কুচাইপট্টি ইউনিয়নে বাসা থেকে স্কুলে ভর্তির টাকা না দেওয়ায় অভিমান করে এক শিক্ষার্থী ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে গোসাইরহাট থানার এসআই শহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে বুধবার (৬ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার কুচাইপট্টি ইউনিয়নের কুলচুরি পাতারচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিক্ষার্থী গোসাইরহাট উপজেলার কুচাইপট্টি ইউনিয়নের কুলচুরি পাতারচর গ্রামের আলমগীর হোসেন মোল্লার মেয়ে অনিমা সুরাইয়া। তিনি চর মাইজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। তার বাবা একজন দিনমজুর।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, অনিমা বছরের প্রথমে স্কুলে ভর্তি হতে পারেনি। টাকা আজ দেব, কাল দেব করে তার পরিবার ঘুরাচ্ছিল। এ কারণে বুধবার (৬ এপ্রিল) সকালে স্কুলে যাওয়ার আগে বাবার কাছে ভর্তির জন্য ২০০ টাকা দাবি করে। এ সময় বাবা টাকা দিতে না পারায় অবশেষে অভিমানে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে তার কোনো সাড়া না পাওয়ার বাবা রুমের দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকেন। দেখতে পান সুরাইয়া গলায় ওড়না দিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছে।

এরপর স্থানীয়দের সহযোগিতায় গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক অবস্থার অবনতি দেখে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হলে কিছুটা উন্নতি হয়। পরে বিকেল ৪টার দিকে মারা যায় অনিমা।

নিহতের বাবা আলমগীর হোসেন মোল্লা বলেন, ২০০ টাকার জন্য মেয়েটা আমার সঙ্গে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছে। আমি জানতাম না তার এতটা রাগ আমার ওপর। আমাকে ছেড়ে চলে গেছে, আমার কলিজার টুকরা।

গোসাইরহাট থানার এসআই শহিদুল ইসলাম বলেন, বুধবার (৬ এপ্রিল) স্কুলের ভর্তির টাকা না দেওয়ায় বাবার সঙ্গে অভিমান করে সুরাইয়া আত্মহত্যা করেছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here