ঝগড়া থামাতে এগিয়ে গেলেন গৃহবধূ, পিটিয়ে মারল প্রতিবেশী

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের কাহুরা গ্রামে তিন সন্তানের জননী রোজিনা আক্তারকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোবাবর বিকেলে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহত রোজিনা আক্তার উপজেলার ছাতিয়াইন ইউনিয়নের শিমুলঘর গ্রামের নূর আলমের স্ত্রী। খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতালে পৌঁছে মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের স্বামী নূর আলম জানান, গত তিন বছর যাবত তিনি স্ত্রী সন্তানসহ তার শ্বশুরবাড়ি কাহুরা গ্রামে বসবাস করে আসছেন। এরই জেরধরে প্রতিবেশী নাজিম মিয়ার সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাদের বিরোধ চলে আসছিল। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পূর্বে শিশুদের ঝগড়া নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ আবারো দেখা দেয়।

গতকাল (২৬ মার্চ) বিকেলে ফের তার দুই শিশু পুত্র রাব্বি ও মুন্নার সঙ্গে ঝগড়ায় লিপ্ত হয় নাজিম মিয়ার ছেলে। এ সময় ঝগড়া থামাতে এগিয়ে গেলে তার স্ত্রী রোজিনা আক্তারকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করা হয়। এ সময় মারাত্মক জখম হন রোজিনা। রোববার দুপুরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে মাধবপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) গোলাম কিবরিয়া হাসান জানান, শিশুদের ঝগড়া নিয়ে তাদের মধ্যে বেশ কিছুদিন যাবত বিরোধ ছিল। এরই প্রেক্ষিতে শনিবারও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। রিপোর্ট ও পুলিশি তদন্তে ঘটনার মূল কারণ বেরিয়ে আসবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here