আগাম সতর্কবার্তা দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে সহায়ক: রাষ্ট্রপতি

নিজস্ব প্রতিনিধিঃআবহাওয়া ও জলবায়ু সংক্রান্ত আগাম সতর্কবার্তা নির্ভুলভাবে জনগণের নিকট পৌঁছে দিতে আবহাওয়া দপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থার প্রতি আহবান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি ‘বিশ্ব আবহাওয়া দিবস ২০২২’ উপলক্ষ্যে এক বাণীতে এ আহবান জানান।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও বুধবার ‘বিশ্ব আবহাওয়া দিবস-২০২২’ পালিত হতে যাচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, “বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার পক্ষ থেকে দিবসটির এবারের নির্ধারিত প্রতিপাদ্য ‘আগাম সতর্কতা এবং আগাম পদক্ষেপ-দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে আবহাওয়া, পানি ও জলবায়ুর তথ্য’- যা অত্যন্ত সময়োপযোগী ও তাৎপর্যপূর্ণ।”

তিনি বলেন, “আগাম সতর্কীকরণ ব্যবস্থা দুর্যোগের ঝুঁকি থেকে জনসাধারণের জীবন ও সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে প্রধান নিয়ামক হিসেবে কাজ করে। জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে মাল্টি-হেজার্ড আর্লি ওয়ানিং সিস্টেম প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঝুঁকি প্রশমনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।”

রাষ্ট্রপতি বলেন, “আবহাওয়া-পূর্বাভাসের ওপর ভিত্তি করে দুর্যোগ আঘাত হানার পূর্বেই কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা গেলে দুর্যোগের সম্ভাব্য ক্ষয়খতি অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব।”

তিনি উল্লেখ করেন, “দুর্যোগ-ঝুঁকিহ্রাস ও দুর্যোগের ক্ষয়খতি কমিয়ে আনতে দীর্ঘমেয়াদি কৌশলগত কর্মপরিকল্পনা প্রণণয়ন এবং প্রয়োজনীয় প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করতে হবে। মাল্টি-হেজার্ড আর্লি ওয়ানিং সিস্টেম’র মাধ্যমে সাড়াদান এবং উদ্ধার প্রক্রিয়ার জন্য আবহাওয়া, পানি ও জলবায়ুর তথ্য দক্ষতার সাথে কাজে লাগাতে হবে।”

আবদুল হামিদ বলেন, “বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন উন্নত গাণিতিক মডেল, ডপলার রাডার ও স্যাটেলাইট উপাত্ত বিশ্লেষণের মাধ্যমে আবহাওয়ার পূর্বাভাস প্রদানের সক্ষমতা অর্জন করেছে।”

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থা সমন্বিতভাবে আবহাওয়া ও জলবায়ু সংক্রান্ত তথ্য, পূর্বাভাস ও আগাম সতর্কবার্তা নির্ভুলভাবে জনগণের নিকট পৌঁছে দিতে সক্ষম হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রাষ্ট্রপতি ‘বিশ্ব আবহাওয়া দিবস ২০২২’ উপলক্ষ্যে গৃহীত সকল কর্মসূচির সফলতা কামনা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here