আঁখিকে ছেড়ে চলে গেল বিলকিস, বাড়ি ফিরলেই বিয়ে

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:প্রেমের টানে টাঙ্গাইলের আঁখির কাছে ছুটে আসা সেই বিলকিসকে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। নোয়াখালীতে নিয়ে গিয়েই তার বিয়ের ব্যবস্থা করবে পরিবার।

মঙ্গলবার টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার ফুলকী ইউনিয়ন পরিষদে অভিভাবকের কাছ থেকে লিখিত নিয়ে তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। একই সঙ্গে অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে আঁখিকেও।

এর আগে, রোববার সন্ধ্যায় প্রেমের টানে নোয়াখালী থেকে সংসার করতে টাঙ্গাইলে প্রেমিকা আঁখির বাড়িতে চলে আসে বিলকিস। বিষয়টি নিয়ে সৃষ্টি হয় চাঞ্চল্য।

বিলকিসের ভাই শরিফুল ইসলাম জানান, ২০ মার্চ বিকেলে ডিম কেনার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয় বিলকিস। এরপর আর ফেরেনি। ঘটনার পর তার মা-বাবা অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বিলকিসকে বাড়িতে নিয়েই বিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

ফুলকী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামসুল আলম জানান, ইউএনওর নির্দেশে দুই কিশোরীর অভিভাবকের সঙ্গে বৈঠক করে লিখিত মুচলেকা নিয়ে তাদের পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ দুই কিশোরী যেন আর যোগাযোগ করতে না পারে সে বিষয়ে তাদের পরিবারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নোয়াখালী সদরের বিলকিস ও টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার আঁখির প্রায় দুই বছর আগে ফেসবুকে পরিচিত হয়। সেই থেকে মেসেঞ্জারে নিয়মিত যোগাযোগ করতে থাকে তারা। এরই ধারাবাহিকতায় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত রোববার (২০ মার্চ) দুজনের ফোনে কথা হয়। এরপর তারা বিয়ে ও সংসার করার সিদ্ধান্ত নেয়। ঐদিন সন্ধ্যায় নোয়াখালী থেকে টাঙ্গাইল শহরে চলে যায় বিলকিস। পরে বাসাইল থেকে গিয়ে তাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায় আঁখি। তাদের অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের বিষয়টি জানাজানি হলে শুরু হয় সমালোচনা। দলে দলে আঁখির বাড়িতে ভিড় করতে শুরু করে লোকজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here