মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে পাঁচ বাড়িতে ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ, আহত ৩০

ফরিদপুর প্রতিনিধি:ফরিদপুরের ভাঙ্গায় মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে গ্রামে হামলা চালিয়ে এক সাংবাদিকের বাড়িসহ তিনটি বাড়িতে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের পর লুটপাট চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। হামলাকারীরা ক্ষেত নষ্ট করে তুলে নিয়ে গেছে ফসলও।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ঐ উপজেলার বালিয়াচড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে অতিরিক্ত পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস গিয়ে পরিস্থিতি এবং আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় বালিয়াচড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার মোল্লা, হান্নান মিয়া, গফফার ও হাবলু মাতুব্বরের বসতঘর ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগসহ মালামাল লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, ১৫ দিন আগে আলগী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কাউসার ভূঁইয়ার জমিতে বালিয়াচরা গ্রামের ছেলেমেয়েরা খেলাধুলা করছিল। সোনাখোলা গ্রামের কয়েকজন ছেলে তাদের বাধা দিলে দুই গ্রামের যুবকদের মধ্যে মারামারি হয়। এতে উভয় গ্রামের মিরহাজ, আলামিন, শাওন, হাসিবুল, সাঈদ ও নাঈম আহত হয়। বিষয়টি নিয়ে সোনাখোলা ও বালিয়াচরা গ্রামের মাতব্বররা সালিশ বৈঠক করে মীমাংসার চেষ্টা করেন। এরই মধ্যে রোববার বিকেলে সোনাখোলা গ্রামের শাওনের নেতৃত্বে একদল যুবক বালিয়াচরা গ্রামের মিরহাজের ওপর হামলা করে। পরদিন সোমবার সোনাখোলা গ্রামের একজন ভ্যানচালকের উপর হামলা হয়। এরপর থেকেই সোনাখোলা গ্রাম থেকে মাইকে হামলার ঘোষণা দেওয়া হচ্ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকালে দুই গ্রামের শত শত লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ফসলের মাঠে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সাংবাদিক এটিএম ফরহাদ বলেন, মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে সোনাখোলা গ্রাম থেকে দলবেঁধে বালিয়াচড়া গ্রামে হামলা চালানো হয়। বালিয়াচড়া পাথারের প্রবেশমুখেই আমার বাড়ি। হামলাকারীরা আমার বাড়ি ভাঙচুরের পর আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে গাফফার মিয়া ও হাবলুর বাড়িসহ পাঁচটি বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়।

ভাঙ্গা থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, হামলার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। পরবর্তীতে জেলা সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। বর্তমানে দুটি গ্রামের মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ অবস্থান করছে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here