চরফ্যাশনে পল্লী চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় প্রসুতি ও নবজাতকের মৃত্যু

চরফ্যাশন প্রতিনিধি:ভোলায় চরফ্যাশনে পল্লী চিকিৎসকের অপ-চিকিৎসায় ফেরদাউস বেগম (২৫) নামে এক প্রসুতি ও তার গর্ভের নবজাতকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

গতকাল শুক্রবার (১৮ মার্চ) রাত ২টার দিকে চরফ্যাশন হাসপাতালে থেকে ভোলার নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

গৃহবধূর ময়নাতদন্তের ভয়ে হত্যার প্রতিবাদ বা বিচার চাইতে নারাজ তার স্বামী ও বাবার পরিবার।

অভিযুক্ত পল্লী চিকিসৎক মামুন প্রভাবশালী হওয়ায় রাতের আধারে রফদায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই নিহতের লাশ দাফন করা হয়েছে বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।

নিহত গৃহবধু হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের চার নম্বর ওয়ার্ডের রুবেলের স্ত্রী।

গৃহবধূর প্রতিবেশীরা জানান, নিহত ফেরদাউস বেগমের সাথে ওই গ্রামের রুবেলের পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর অস্ত্রপাচারের মাধ্যমে প্রথম সন্তানের জম্ম হয়। ওই গৃহবধূ ফের সন্তান সম্ভববা হলে চেয়ারম্যান বাজারের স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক মামুনের চিকিৎসা নেন ওই গৃহবধূ।

শুক্রবার গৃহবধূর হালকা প্রসব বেদনা শুরু হলে পল্লী চিকিৎসক মামুনের শরন্নাপন্ন হন গৃহবধূর স্বামীর  পরিবার। কিন্তু মামুন তাকে চরফ্যাশন হাসপাতালে না পাঠিয়ে নরমাল ডেলেভারির চেষ্টা করেন।

শুক্রবার রাতে গৃহবধূর অবস্থার অবনতি হলে মামুন তাকে নিয়ে চরফ্যাশনের সেবা ডায়াগনিস্টিক সেন্টারে ছুটে যান। সেখানে অবস্থার আরো অবনতি হলে সেবার মেডিকেল সার্ভিসেস এন্ড ডায়গনিস্টিক কতৃপক্ষ তাকে সরকারী হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

চরফ্যাশন হাসাপাতলে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাতালে রেফার করেন। বরিশাল নেয়ার পথে ভোলা সদরের কাছাকাছি গেলে প্রসুতি ও  তার গর্ভের নবজাতকের মৃত্যু হয়।

এদিকে, ময়নাতদন্তের ভয়ে ওই গৃহবধূর স্বামীর পরিবার হত্যার প্রতিবাদ বা বিচার চাইতে নারাজ। মামুন প্রভাবশালী হওয়ায় ভুক্তভোগী পরিবার অভিযোগ জানাতেও নারাজ।

নামপ্রকাশ না করার শর্তে এক স্থানীয় জানান, ইতোপূর্বে ওই পল্লী চিকিৎসক মামুনের ভুল চিকিৎসায় আরো প্রসুতি অনেক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি প্রভাবশালী হওয়ায় কোনো ভূক্তভোগী পরিবার প্রতিবাদ করতে সাহস পায়নি।

ঘটনার পরপরই অভিযুক্ত পল্লী চিকিৎসক মামুন আত্মগোপনে রয়েছেন।

চরফ্যাশন হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. শোভন বসাক জানান, একজ পল্লী চিকিৎসক কখনও প্রসূতির চিকিৎসা বা ডেলেভারির কাজ করতে পারেনা। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here