শিক্ষায় খেলাধুলাকে বাধ্যতামূলক করার ওপর শিক্ষামন্ত্রীর গুরুত্বারোপ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃশিক্ষার্থীদের শারীরিক কাঠামো গড়ে তুলতে শিক্ষায় খেলাধুলাকে বাধ্যতামূলক করার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সোমবার বেলা ১১টায় গোরে-ই শহীদ বড় মাঠে ৫০তম শীতকালীন জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০২২ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ গুরুত্বারোপ করেন।

শিক্ষার্থীদের সুস্থ মানসিকতা ও সাবলীলভাবে গড়ে তুলতে খেলাধুলার প্রতি মনোনিবেশ করতে হবে উল্লেখ করে ডা. দীপু মনি বলেন, প্রত্যেক শিক্ষার্থী লেখাপড়ার পাশাপাশি যেন খেলাধুলায় মনোনিবেশ করতে পারে, সে বিষয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে আসতে হবে। এ জন্য তিনি শিক্ষকদের নানা পরামর্শ দেন।

তিনি আরো বলেন, একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আধুনিক বিজ্ঞানমনস্ক ও সুস্থ-সবল জাতি গঠনের লক্ষ্যকে স্থির রেখে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মনোরঞ্জন শীল গোপাল, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী ও অন্যান্য নেতারা।

অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহা-পরিচালক প্রফেসর নেহাল আহমেদ। দেশের ১১টি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা ও শিক্ষা বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে জাতীয়, অলিম্পিক ও ক্রীড়া সমিতির পতাকা  উত্তোলনের পর বেলুন উড়িয়ে ৫০তম শীতকালীন জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।
এরপর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বড় মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাদের মনোজ্ঞ খেলাধুলা ডিসপ্লে প্রদর্শন করে।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. কামরুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার থেকে দিনাজপুর স্টেডিয়ামসহ ৬টি ভেন্যুতে খেলাগুলো পর্যায়ক্রমে অনুষ্ঠিত হবে। ৮২৪ জন প্রতিযোগী ৪টি অঞ্চলে বিভক্ত হয়ে ৮টি ইভেন্টে খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করবেন।

প্রতিযোগিতায় চট্টগ্রাম, সিলেট ও কুমিল্লা বিভাগ নিয়ে বকুল অঞ্চল, খুলনা ও বরিশাল বিভাগকে নিয়ে গোলাপ অঞ্চল, ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগকে নিয়ে পদ্মা অঞ্চল এবং রাজশাহী ও রংপুর বিভাগকে নিয়ে প্রতিযোগীরা এই খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করবে। এর মধ্যে ৪৪০ জন ছাত্র ও ৩৮৪ জন ছাত্রী রয়েছে। এছাড়া ৪টি অঞ্চলে ৫৬ জন টিম লিডার ও ৪ জন কন্টিনজেন্ট লিডার থাকবে। প্রতিযোগী ইভেন্টের মধ্যে রয়েছে অ্যাথলেটিক্স হকি, ক্রিকেট, বাক্সেট বল, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন, টেবিলটেনিস ও সাইক্লিনিং। এই প্রতিযোগিতায় ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৬ লাখ ৪ হাজার ১৫৪ টাকা।

আগামী ১৯ মার্চ পর্যন্ত ৬ দিনব্যাপী এই খেলাধুলা চলমান থাকবে। ১৯ মার্চ খেলাধুলার সমাপ্তি পর্বে বিজয়ীদের মধ্যে  পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এ প্রতিযোগিতার সমাপনী ঘোষণা করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here