জীবিত স্বামীকে বানালেন মৃত, কারাগারে মেম্বার স্ত্রী

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:স্বামী জীবিত রয়েছেন। এরপরও স্বামীকে মৃত বানিয়েছেন মেম্বার স্ত্রী। এমনই এক মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন স্ত্রী ইউপি সদস্য শারমিন আক্তার।

ভুক্তভোগী ৬৩ বছর বয়সী শফিকুল ইসলামের বাড়ি মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার শিবালয় মডেল ইউনিয়নে। তার স্ত্রী শারমিন আক্তার শিবালয় মডেল ইউনিয়ন পরিষদের ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সদস্য।

এ ঘটনায় স্ত্রী শারমিন, ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলাল উদ্দিন ও একই ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুর রউফ খানের বিরুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী শফিকুল।

বৃহস্পতিবার শিবালয় থানায় করা মৃত্যুসনদ জালিয়াতির অভিযোগে মামলাটি করা হয়। মামলার পর অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে শারমিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। শনিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, ২৭ সেপ্টেম্বর শিবালয় উপজেলার সমাজসেবা অফিসে ঋণ তোলার জন্য যান শফিকুল। এ সময় কাগজপত্র দেখে ‘শফিকুল’ মারা গেছেন বলে জানান সংশ্লিষ্ট অফিসার। মৃত্যুর প্রমাণ হিসেবে শিবালয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিনের স্বাক্ষরিত মৃত্যুসনদ দেখানো হয়। পরে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে গেলে হত্যার পর লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দেন অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ও মেম্বার।

শিবালয় থানার ওসি মো. ফিরোজ কবির বলেন, শফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি জীবিত থাকার পরও চেয়ারম্যান-মেম্বারের যোগসাজশে মৃত দেখিয়েছেন তার স্ত্রী। এছাড়া বিষয়টি নিয়ে কারো কাছে অভিযোগ দিলে তাকে হত্যার পর লাশ গুমেরও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পেয়েছি। প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় মামলা এজাহারভুক্ত করা হয়। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে তিন নম্বর আসামি ও বাদীর স্ত্রী শারমিন আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়। শনিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছেন বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here