শেষের পথে ফেরদৌস-পূর্ণিমার ‘গাঙচিল’

বিনোদন:মঙ্গলবার, দুপুর গড়িয়ে বিকেল হতে চলল। আকাশেও তখন কালো মেঘের ঘনঘটা। রাজধানী থেকে কিছুটা দূরে পূর্বাচলের একটি বাড়ির সামনে চলচ্চিত্র শুটিং ইউনিটের বাস এবং গাড়ি দাঁড়িয়ে। রাস্তায় দেখা গেলো ক্যামেরা নিয়ে ছুটোছুটি। শুটিং চলছে ‘গাঙচিল’ সিনেমার। দুপুর থেকে শুটিং শুরু হলেও দিনের অবস্থা এবং পরিবেশ পরিস্থিতির কারণে শুটিং করতে কিছুটা বিলম্বই হলো। এরমধ্যেই ছবিটির নির্মাতা নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল তার টিমকে নিয়ে ছুটবেন নদীর পাড়ে। কথা হলো তার সঙ্গে। তিনি জানান, ছবির কাজ সম্পূর্ণ শেষ-ই বলা চলে। দুই-তিন দিনের কিছু প্যাঁচওয়ার্ক বাকি রয়েছে, এখন সেগুলোই করছি। এরমধ্যেই ছবির নায়ক ফেরদৌস সামনে এসে হাজির, কুশল বিনিময় শেষে পরিচালকের সঙ্গে গাড়িতে করে চলে গেলেন নদীর পাড়ে। বাসার ভিতরে যেতেই দেখা মিলল ছবির নায়িকা পূর্ণিমার। ছবির আরেক অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনের সঙ্গে স্ক্রিপ্ট নিয়ে আলোচনায় ব্যস্ত থাকার ফাঁকেই কুশল বিনিময় সারলেন। পূর্ণিমা বলেন, এটা এমন একটা জায়গা যেখানে নেটওয়ার্কই পাওয়া যায় না। যার জন্য যোগাযোগ করতেও একটু সমস্যা হচ্ছিলো। দুপুর বেলা থেকে এখানে শুটিংয়ে অংশ নিয়েছি। কিছু প্যাঁচওয়ার্কের কাজ বাকি ছিলো সেগুলো দুই দিনে করার চেষ্টা করছি। ছবিটি নিয়ে তো অনেক সময় হলো, এবার শেষ করে দিতে পারলে হয়তো শিগগিরই মুক্তি দেওয়া যাবে। ২০১৮ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর জমকালো আয়োজনে ‘গাঙচিল’র মহরত অনুষ্ঠিত হয়। এর পরের বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে নোয়াখালীতে শুরু হয় এর শুটিং। এরপর কয়েক দফায় নোয়াখালী, ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় হয়েছে এর শুটিং। সিনেমাটি নির্মিত হচ্ছে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ‘গাঙচিল’ উপন্যাস অবলম্বনে। যৌথভাবে ‘গাঙচিল’র চিত্রনাট্য লিখেছেন বাংলাদেশ থেকে নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল, মারুফ রেহমান, পান্থ শাহরিয়ার ও কলকাতার প্রিয় চট্টোপাধ্যায়। পরিচালনা করছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল। ইচ্ছেমতো এবং নুজহাত ফিল্মসের প্রযোজনায় সিনেমাটিতে ফেরদৌস সাংবাদিক চরিত্রে ও এনজিও কর্মীর চরিত্রে অভিনয় করছেন পূর্ণিমা। এ ছাড়া আরও অভিনয় করছেন তারিক আনাম খান, আফজাল হোসেন ও আনিসুর রহমান মিলন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here