শ্বশুরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন জামাই

বগুড়া প্রতিনিধি:বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায় জামাইয়ের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে শ্বশুর আব্দুল খালেক গুরুতর আহত হয়েছেন।

উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে মঙ্গলবার সকালে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল (শজিমেক) হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এর আগে সোমবার রাতে তিনি সারিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

অভিযুক্ত জামাইয়ের নাম শুভ। তিনি উপজেলার কাজলা ইউনিয়নে কটাপুর চর গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবার নাম আনোয়ার হোসেন। প্রায় দুই বছর আগে একই ইউনিয়নের দক্ষিণ টেংরাকুড়া রাবেয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়।

জানা গেছে, রাবেয়াকে বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিল শুভর। ১০ দিন আগে রাবেয়া ও শুভর সংসারে একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। ওই দিন রাবেয়ার মা রুমি নাতনিকে দেখতে গেলে শুভ তাকে লাঞ্ছিত করেন। পরে সোমবার রাত ৮টার দিকে শুভর শ্বশুর আব্দুল খালেক নাতনিকে দেখতে জামাই বাড়িতে যান। সেখানে জামাই-শ্বশুরের মধ্যে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়।

একপর্যায়ে শুভ ধারালো অস্ত্র দিয়ে আব্দুল খালেক এলোপাতাড়িভাবে আঘাত করেন। এতে আব্দুল খালেক গুরুতর আহত হন। প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবণতি হলে মঙ্গলবার সকালে তাকে শজিমেক হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এ ঘটনায় পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি।

আব্দুল খালেকের বড় মেয়ে সান্তনা বেগম বলেন, আমার বাবাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে শুভ। তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here