উত্তাল পদ্মায় ঘাস আঁকড়ে ৭ কিমি. ভেসেছিলেন ৩ কৃষক

রাজবাড়ী প্রতিনিধি:রাজবাড়ীর সদর উপজেলার অন্তরমোড়ের অদূরে পদ্মা নদীতে ট্রলার ডুবির ঘটনায় স্রোতে ৭ কিলোমিটার দূরে ভেসে যাওয়া ৩ কৃষককে জীবিত উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) দুপুর ৩টার দিকে উজানচর ইউনিয়নের চর কর্ণেশন এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া ব্যাক্তিরা হলেন সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের অন্তরমোড় এলাকার কৃষক মহির উদ্দিন মন্ডল, একই ইউনিয়নের কাসরন্দ গ্রামের আব্দুল লতিফ খাঁ ও রমজান শেখ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গোখাদ্য সংগ্রহের জন্য তারা একটি ছোট নৌকা নিয়ে গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের চর বেথুরী এলাকায় গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ঘাসবোঝাই নৌকা নিয়ে ফেরার পথে পদ্মায় তীব্র স্রোত ও ঢেউয়ের আঘাতে ট্রলারটি ডুবে যায়। তবে তারা ট্রালারে থাকা ঘাসের বোঝা আঁকড়ে ধরে নদীতে ভেসে ছিলেন।

উদ্ধার হওয়া কৃষকরা বলেন, গাবদিপশুর ঘাস কাটতে তারা পদ্মার ওই পাড়ে যাই। ঘাস কেটে নৌকা নিয়ে আসার সময় মাঝ নদীতে আসলে তীব্র স্রোতে আমাদের নৌকা ডুবে যায়। নদীতে সে সময় প্রবল স্রোত থাকায় আমরা তীরে ভিড়তে পারিনি। পরে কেটে আনা ঘাসের বোঝার ওপর ভর করে ভাসতে থাকি।

তারা আরো বলেন, ভাসতে ভাসতে ৭ কিলোমিটার দূরে উজানচরের চর কর্ণেশান এলাকায় চলে আসি। পরে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকা থেকে স্থানীয়রা দেখে পুলিশকে খবর দিলে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ এসে আমাদের উদ্ধার করে। ভেবেছিলাম আমরা হয়তো আর বাঁচব না। কিন্তু আল্লাহর অশেষ রহমত ও থানার ওসিসহ অন্যদের সহযোগিতায় উত্তাল পদ্মা থেকে বেঁচে ফিরে আসি।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর বলেন, আমরা ঘাটেই অবস্থান করছিলাম। এ সময় তাদের ভাসতে দেখে জেলেদের মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার নিয়ে ৩০ মিনিটের চেষ্টায় তাদের জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করতে সক্ষম হই। পরে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here