পটুয়াখালীর বাউফলে চিকিৎসকসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

সাঈদ ইব্রাহিম,পটুয়াখালী ঃ পটুয়াখালী বাউফলের কালিশুরী বন্দরে লাইফ কেয়ার নামে একটি ক্লিনিকে সাথী আক্তার (২৩) নামে এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সংশ্লিষ্ট দুই চিকিৎসকসহ ১৩ জনের নামে বাউফল থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন। সাথী কাছিপাড়া ইউনিয়নের দরিয়াবাদ গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর স্বামীর নাম মোঃ মিলন হাওলাদার। বাবা সোহরাব হাওলাদারের বাড়ি একই ইউনিয়নের মান্দারবন গ্রামে। জানা গেছে, গত বুধবার বিকেল পাঁচটার দিকে সাথীকে কালিশুরী বন্দরের লাইফ কেয়ার ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ওই দিন সন্ধ্যা ৭টায় তার অস্ত্রোপচার করার কথা ছিল। কিন্তু ওই সময়ের আধা ঘন্টা আগে তড়িগড়ি করে তার অস্ত্রোপচার করা হয়। একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হলেও সাথী মারা যায়। সাথির ভগ্নিপতি মোঃ রিয়াজ গাজী অভিযোগ করেছেন, দায়িত্বে অবহেলা ও নামধারী চিকিৎসক দ্বারা অস্ত্রোপচার করার কারণেই সাথী মারা গেছে। মারা যাওয়ার পরেও দায় এড়াতে গুরুতর অসুস্থতার নাটক করে মৃত সাথীকে বরিশালে নেওয়ার জন্য জোরপূর্বক একটি অ্যাম্বুলেন্সে উঠিয়ে দেয়। এ ঘটনায় চিকিৎস আহম্মেদ কামাল ও নাবিলা রহমানসহ ৮ ব্যক্তির নাম উল্লেখ করে আরও ৪-৫ অজ্ঞাত ব্যক্তির নামে বৃহস্পতিবার সকালে বাউফল থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। মৃত সাথীর ভাই মোঃ শুভ হাওলাদার (২১) বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। বাউফল থানার ওসি আল মামুন বলেন, মামলা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হামপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। চিকিৎসকের সনদ ও ক্লিনিকের কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে যাছাই করা হবে। সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here