পাচারের কবল থেকে বাঁচলেও শেষ রক্ষা হলো না ভোঁদড়ের

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:ভারতে পাচারকালে সাতক্ষীরা সীমান্ত থেকে বিজিবি কর্তৃক উদ্ধার হওয়া দুটি ভোঁদড়, ছয়টি খরগোশ ও একটি ঈগল পাখি সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়। বুধবার বিকেলে শ্যামনগরের বুড়িগোয়ালিনী ইউপির কলবাড়ি গ্রামের রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও ঝন্টু বর্মণের পুকুরে একটি ভোঁদড় গেলে জাল দিয়ে ধরে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।
স্থানীয় বাসিন্দা মাসুম বিল্লাহ বলেন, এলাকার মানুষ ছেড়ে দেওয়ার জন্য বারবার অনুরোধ করেও শেষ রক্ষা হয়নি। সবার সামনে ভোঁদড়টিকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ভবতোষ কুমার মণ্ডল বলেন, অবমুক্ত করা ভোঁদড় দুটি বন থেকে লোকালয়ে প্রবেশ করে কলবাড়ি এলাকার একটি পুকুরে অবস্থান করছিল পরে পুকুরে মালিক ভোঁদড়কে জাল দিয়ে আটক করে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে শুনেছি। তবে এটা যেই করুক না কেন বন্যপ্রাণী হত্যা করা বন আইনে অপরাধ।

মুন্সিগঞ্জ বন টহল ফাঁড়ির ইনচার্জ জিয়াউর রহমান জানান, আমি ট্রেনিংয়ে আছি বিষয়টি তদন্ত করতে আমাদের স্টাফ পাঠিয়েছি ঘটনার সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে, বিজিবির সাতক্ষীরা ৩৩ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা ভারতে পাচারকালে ৯টি বন্যপ্রাণী উদ্ধার করে সুন্দরবনে অবমুক্ত করার জন্য বনবিভাগের কাছে হস্তান্তর করে। যা ওইদিনই সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়।

এদিকে, বিলুপ্তপ্রায় ভোঁদড় পিটিয়ে হত্যা করায় স্থানীয়রা অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here