ছাত্রদল নেতার বাড়িতে ঢুকে প্রেমিকার বিষপান

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:কুষ্টিয়ার কুমারখালী সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমেদ নাভিন। ফেসবুকের মাধ্যমে এক কলেজছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর বিয়ের আশ্বাসে নাভিনের বাড়িতে হাজির হন প্রেমিকা। কিন্তু নাভিন তাকে অস্বীকার করলে ওই বাড়িতেই বিষপান করেন তিনি।

রোববার বিকেলে কুমারখালী পৌরসভার তেবাড়িয়া এলাকায় ছাত্রদল নেতা নাভিনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পরে ওই কলেজছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করেন নাভিনের বাবা ব্যবসায়ী নাজমুল।

জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরে ছাত্রদল নেতা শামীম আহমেদ নাভিনের বাড়িতে হাতে মেহেদী লাগিয়ে অনশনে বসেন ওই কলেজছাত্রী। খবর পেয়ে ওই রাতেই পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং তার পরিবারকে খবর দেয়। শনিবার সকালে থানায় দুই পরিবারের বৈঠকে সমাঝতা হয়। পরদিন রোববার দুপুরে ওই কলেজছাত্রী পুনরায় নাভিনের বাড়িতে হাজির হয়ে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করেন। এরপর নাভিনের পরিবার তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করায় তিনি বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে তাকে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন ওই কলেজছাত্রী বলেন, দেড় মাস আগে ফেসবুকে আমাদের পরিচয়। এক পর্যায়ে নাভিনের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নাভিন বিয়ের আশ্বাস দিয়ে তার বাড়িতে চলে আসতে বলে। আমি তার বাসায় গেলে তারা আমাকে অস্বীকার করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পুলিশ জোড় করে আমার পরিবারের কাছে তুলে দেয়। আমি রোববার আবার নাভিনের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন করি। এরপর ওরা খারাপ আচরণ করায় বিষপান করেছি।

ছাত্রদল নেতা নাভিনের বাবা নাজমুল বলেন, শুনেছি ফেসবুকে আমার ছেলের সঙ্গে ওই মেয়ের পরিচয়। তবে আমার ছেলে প্রেমের কথা স্বীকার করেনি। এনিয়ে থানায় বৈঠক হয়েছিল।

অভিযুক্ত নাভিন বলেন, এ বিষয়ে কথা বলতে চাচ্ছি না। যা মন চায়, তাই করেন।

কুমারখালী থানার এসআই জসিম উদ্দিন বলেন, অভিযুক্ত ছাত্রদল নেতা শামীম আহমেদ নাভিন এবং ওই কলেজছাত্রীর পরিবারের সঙ্গে থানায় বৈঠক করে সমঝোতা করা হয়েছিল। পরে কি হয়েছে জানি না। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here