ইউএনও’র নিরাপত্তাকর্মীদের গুলিতে চোখ হারালেন আওয়ামী ও যুবলীগের দুই নেতা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃবরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) নির্দেশে নিরাপত্তারক্ষী আনসার সদস্যদের গুলিতে দুইজন আওয়ামী ও যুবলীগ নেতার চোখ নষ্ট হয়ে গেছে। তারা বর্তমানে ঢাকায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশালের মুলাদী পৌরসভার মেয়র শফিকুজ্জামান রুবেল।

শনিবার বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত বিভাগীয় পৌর মেয়রদের সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

 

শফিকুজ্জামান রুবেল বলেন, বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯টায় বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবনে সিটি করপোরেশনের কর্মীরা নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবে বির্বণ, ছেড়া ব্যানার অপসারণ করতে গেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাতে বাধা দেন। এ নিয়ে সিটি কর্পোরেশনের কর্মচারীদের সাথে বিরোধ দেখা দিলে ২৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনির এবং মহানগর যুবলীগ নেতা তানভীর সেখানে যান। ঘটনার আকস্মিকতায় ইউএনও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর গুলি করলে মনিরুল ইসলাম ও তানভীরের চোখে গুলি লাগে।

তাদের উন্নত চিকিৎসার জন ঢাকায় নেয়া হয় ওই রাতেই। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ দায়িত্বরত চিকিৎসকরা জানিয়ে দিয়েছেন তাদের দুজনের চোখ নষ্ট হয়ে গেছে। তারা দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছেন।

এই ঘটনার সঠিক বিচার চেয়ে মেয়র রুবেল বলেন, যারা অকারণে গুলি করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অন্ধ করে দিয়েছে তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা করার দাবি জানাই।

প্রসঙ্গত, বুধবার (১৮ আগস্ট) রাতে ব্যানার অপসারণকে কেন্দ্র করে বরিশালে পুলিশ, আনসার ও স্থানীয় ছাত্রলীগ সদস্যদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই রাতে সদর উপজেলা ইউএন’র সরকারি বাসভবনে হামলা চালায় ছাত্রলীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ, শ্রমিক ইউনিয়ন, আওয়ামী লীগ ও সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা। এ সময় গুলির ঘটনায় আহত হন অনেকে। পুলিশ ও ইউএনও মুনিবুর রহমান বাদী হয়ে পৃথক দুটি মামলা করেছেন। যাতে ৬০২ জনকে আসামি করা হয়েছে এবং মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহকে করা হয়েছে প্রধান আসামি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here