দলে দুর্নীতিবিরোধী শুদ্ধি অভিযান চালাবে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিনিধিঃক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে অতিরিক্ত দুর্নীতির কারণে বিএনপি-জামায়াতের যথেষ্ট বদনাম হয়েছিল। যার প্রভাব পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনগুলোতে পড়লে রাজনীতির ময়দানে মুখ থুবড়ে পড়ে বিএনপি-জামায়াত জোট। সেই ধারাবাহিকতায় দেশি ও আন্তর্জাতিক পৃষ্ঠপোষকদের চাপে দুর্নীতিবাজ সিন্ডিকেট ভেঙে দলের অভ্যন্তরে দুর্নীতিবিরোধী শুদ্ধি অভিযান চালানোর পরিকল্পনা করছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

জানা গেছে, দলের রাজনীতিতে গতি ফিরিয়ে আনতে এবার ক্ষমতাসীন দলের দুর্নীতিবিরোধী অভিযানকে মডেল মেনে বিএনপিও অভ্যন্তরে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান পরিচালনা করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দলটির পৃষ্ঠপোষকদের চাপে পড়েই চিহ্নিত দুর্নীতিবাজ নেতাদের পদ থেকে অপসারণ করারও চিন্তা করছেন তিনি। সেই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আগামী দলীয় কাউন্সিলে দলের বিতর্কিত নেতাদের তালিকা তৈরি করেছেন তারেক রহমান। দুর্নীতিবাজদের বাদ দিয়ে দলের ভাবমূর্তি ফিরিয়ে এনে সর্ব-সাধারণের মাঝে গ্রহণযোগ্যতা বাড়াতে এই কাজটি করতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি।

যুক্তরাজ্য বিএনপির একজন দায়িত্বশীল নেতার বরাতে এমন পরিকল্পনার বিষয়ে জানা গেছে।

যুক্তরাজ্য বিএনপির একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা বলেন, বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতাদের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের কারণে দলের ইমেজ যথেষ্ট ক্ষুণ্ণ হয়েছে। বিশেষ করে ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, আব্দুল আউয়াল মিন্টুর মতো দুর্নীতিবাজ নেতাদের কারণে বিএনপির রাজনীতিতে চরম নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। যার ধারাবাহিকতায় ২০০৮ সালের নির্বাচনের পর থেকেই পরাজয়ের গণ্ডি থেকে বের হতে পারেনি বিএনপি।

তিনি বলেন, দলের অভ্যন্তরীণ দুর্নীতি ঝেড়ে ফেলতে তারেক রহমান এরই মধ্যে দুর্নীতিবাজ ও দুর্নীতিপ্রবণ নেতাদের একটি তালিকা করেছেন। সেখানে সিনিয়র থেকে দ্বিতীয় ও তৃতীয় সারির একাধিক নেতা রয়েছেন। দলের ভবিষ্যৎ রক্ষা করতে দেশি ও আন্তর্জাতিক সমর্থক গোষ্ঠীর চাপে পড়েই এই পরিকল্পনা গ্রহণ করতে বাধ্য হয়েছেনভ তারেক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here