সাইকেল চালিয়ে ফিরে এলো সাত বছর আগে খুন হওয়া যুবক!

বগুড়া প্রতিনিধি:বগুড়ায় সাত বছর আগে খুন হওয়া শামীম নামে এক যুবককে হঠাৎ দেখা গেছে সাইকেল চালিয়ে ঘোরাফেরা করতে। অথচ তাকে খুনের মামলায় সাড়ে চার মাস জেল খেটেছেন আজিজার রহমান নামে এক ব্যক্তি। সাত বছর ধরে আদালতে নিয়মিত হাজিরা দিয়েও আসছেন তিনি।

দীর্ঘ বছর পর সোমবার সকালে হঠাৎ শামীমের দেখা মিলেছে বগুড়ার সদর উপজেলার মানিকচক এলাকায়। তাকে জীবিত দেখা গেছে, এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে শতশত গ্রামবাসী তাকে এক নজর দেখার জন্য ভিড় করেছিলেন। বর্তমানে শামীম বগুড়া সদর থানায় পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

শামীম সদর উপজেলার শাখারিয়া এলাকার বাসিন্দা। তার বাবার নাম শাহিন। আর আজিজার রহমান পার্শ্ববর্তী এলাকা মানিকচকের বাসিন্দা। তার বাবার নাম মৃত ধলু প্রামাণিক। আজিজার পেশায় শহরের বড়গোলা এলাকার একটি মুদির দোকানে কর্মচারী।

আজিজার রহমান বলেন, ‘শামীমের কাছ থেকে এক লাখ টাকা পাওনা ছিল আমার। সাত বছর আগে শামীমকে টাকার জন্য চাপ দেই। ওই সময়ই শামীম গ্রাম থেকে উধাও হয়ে যায়। পরে আমার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন শামীমের মা ঝর্ণা বেগম।

তিনি বলেন, ‘শামীম হত্যা মামলাাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এ মামলায় সাড়ে চার মাস জেল খেটেছি। এখনো নিয়মিত আদালতে হাজিরা দিয়ে আসছি।

আজিজার বলেন, সোমবার সকালে মানিকচক এলাকায় শামীমকে বাইসাইকেল চালিয়ে ঘোরফেরা করতে দেখা যায়। পরে আমার ছোট ভাই তাকে আটক করে। পরবর্তীতে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ এসে তাকে (শামীম) থানায় নিয়ে যায়।

জানতে চাইলে বগুড়ার সদর থানার ওসি মো. সেলিম রেজা বলেন, ‘ শামীম বর্তমানে থানা হেফাজতে রয়েছেন। তিনি প্রায় পাঁচ বছর আগে আদালতে হাজিরও হয়েছিল বলে আমাদের বলা হচ্ছে। আর হত্যা মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here