কলাপাড়ায় নারী খাদ্য পরিদর্শক ও ডিলারের সাথে অবৈধ সম্পর্ক,থানায় জিডি

 

সাঈদ ইব্রাহিম,পটুয়াখালীঃপটুয়াখালীর কলাপাড়া খাদ্য অধিদপ্তরের নারী খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা’র বিরুদ্ধে একজন ওএমএস ডিলারের সাথে অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগে কলাপাড়া থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে। পৌরশহরের ইসলামপুর এলাকার মোসা: মাসুমা আক্তার কলি কলাপাড়া থানায় এ সাধারন ডায়েরী দায়ের করেন। কলাপাড়া থানার ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান সাধারন ডায়েরী দায়েরের সত্যতা স্বীকার করেছেন।
সাধারন ডায়েরী সূত্রে জানা যায়,খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা মাসুমা আক্তার’র স্বামী ওএমএস ডিলার মামুন হাওলাদার’র সাথে দীর্ঘ ১ বছর ৬ মাস পরকীয়ায় লিপ্ত হয়ে অনৈতিক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। মাসুমা তার দু’টি শিশু সন্তান নিয়ে আরিফার কাছে তার ১১ বছরের সংসার রক্ষায় অনুনয় বিনয় করায় তাকে সহ সন্তানদের মেরে ফেলার হুমকী দেয়া হয়েছে। এছাড়া খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা তার পূর্ববর্তী কর্মস্থলে কারো না কারো সংসার ভেঙ্গেছে বলে সাধারন ডায়েরীতে উল্লেখ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা বলেন, ’ব্যবসায়ী মামুন হাওলাদার এর সাথে আমার সম্পর্ক নৈতিক। আমরা পরস্পর স্বামী, স্ত্রী। আমাদের বিয়ের রেজিষ্ট্রী কাবিন আছে।’

কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো: আসাদুর রহমান বলেন, ’খাদ্য পরিদর্শক আরিফা সুলতানা’র বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগ সংক্রান্ত জিডি’র কপি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে খাদ্য অধিদপ্তর সহ উপজেলা প্রশাসনের কাছে প্রেরন করা হয়েছে। এছাড়া ভুক্তভোগী মাসুমা আক্তার আদালতের শরনাপন্ন হয়ে আইনের আশ্রয় নিতে পারেন।’
কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহম্মদ শহিদুল হক বলেন,’সাধারন ডায়েরীর কপি পেয়েছি। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে জেলা খাদ্য কর্মকর্তা, পটুয়াখালীকে প্রেরন করা হয়েছে।’
জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মো: লিয়াকত আলী বলেন, ’এ বিষয়টি আমি এখনও অবগত নই। বিষয়টি লিখিত ভাবে জানার পর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুসারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here