ধর্ষণে জন্ম নেয়া শিশুর লাশ নিয়ে কোথায় যাচ্ছিল তারা

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি;মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে বাজারের ব্যাগে করে শিশুর লাশ নিয়ে যাওয়ার সময় দুইজনকে আটক করেছে স্থানীয়রা। পরে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

আটককৃতরা হলো- মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার জয়নগর গ্রামের মাজেম মিয়ার ছেলে খালেক মিয়া, তোতা মিয়ার ছেলে সাইদুর রহমান। শুক্রবার সকালে হরিরামপুরের সুরাই গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী আজাদুর রহমান বলেন, সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ওই দুই ব্যক্তি সুরাই গ্রামের সিরাজের বাড়িতে গিয়ে বাচ্চা বিক্রির টাকা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। পরে ওই বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে ফেরার পথে স্থানীয়রা তাদের আটক করে। এ সময় তাদের কাছে থাকা বাজারের ব্যাগে দুইদিন বয়সী একটি শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানায়।

আটকের পর খালেক মিয়া জানান, সিরাজের এক প্রতিবেশীর মেয়ে বৃহস্পতিবার সদর উপজেলার জয়নগরের একটি হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করে। স্বামী পরিত্যক্তা ওই প্রসূতির পরিবার হাসপাতালের খরচ বহনে অক্ষম ছিল। পরে তারা শিশুটিকে বিক্রির সিদ্ধান্ত নেন। সিরাজ ও তার শ্যালক উজ্জ্বলের মাধ্যমে এ খবর পেয়ে নিজের এক আত্মীয়ের জন্য শিশুটিকে কিনতে চান খালেক। এর জন্য সিজারের খরচ বাদে তারা বিশ হাজার টাকায় চুক্তিও করেন।

তিনি আরো জানান, শিশুটি অস্বাভাবিকভাবে জন্মগ্রহণ করায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে সেখানে চিকিৎসার খরচ বেশি হওয়ায় তাকে জয়নগরে আগের হাসপাতালেই ফিরিয়ে নেয়া হয়। সেখানে বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটির মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতালের খরচ না দিয়েই ওই প্রসূতির স্বজনরা বাড়ি চলে গেলে শুক্রবার সকালে হাসপাতাল থেকে শিশুটিকে নিয়ে তাদের বাড়িতে যান খালেক। সেখান থেকে ফেরার সময় স্থানীয়দের হাতে আটক হন তিনি।

হরিরামপুর থানার এসআই অতুল জোয়ার্দার জানান, ঘটনাস্থল থেকে ওই দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেয়া হয়েছে। শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেখানে তার ডিএনএ টেস্ট করানো হবে।

তিনি আরো জানান, স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী এক ব্যক্তির ধর্ষণের ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছিলেন। অভিযুক্ত ব্যক্তিকেও আটক করে ডিএনএ টেস্ট করানো হবে। সব রিপোর্ট পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here