স্বামীর মৃত্যুর ১০দিন পর মারা গেলেন স্ত্রীও

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:নেত্রকোনায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আগে মারা যান ঠিকাদার স্বামী মাহফুজুর রহমান লিটন। স্বামীর মৃত্যুর ১০ দিন পর মারা গেলেন তার স্ত্রী ফারজানা খানম মুক্তাও।

শুক্রবার সকালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান ফারজানা।

পরে ময়মনসিংহের স্বেচ্ছাসেবী দল ‘টিম আলী ইউসুফ’ এর নারী টিম ফারজানা খানম মুক্তার লাশ শহরের গ্রহণ করে শহরের ভাটিকাশর গোরস্থানে গোসল করিয়ে এবং কাফনের কাপড় পরিধান করিয়ে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে নেত্রকোনায় পাঠায়।

এদিকে দুপুরে নেত্রকোনা পৌর শহরের সাতপাই কলেজ রোড এলাকার বাবার বাড়িতে ফারজানা খানমের লাশ এসে পৌঁছালে জুমার নামাজের পর তার জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করেন স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবীরা। এ সময় ফারজানা খানম মুক্তার পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনরাও উপস্থিত ছিলেন।

স্বেচ্ছাসেমী সংগঠন ‘টিম আলী ইউসুফ’ এর প্রধান সমন্বয়কারী আলী ইউসুফের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। আমরা সকালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ফারজানা খানম মুক্তার লাশ গ্রহণ করে ভাটিকাশর গোরস্থানে নারী টিমের মাধ্যমে তার লাশের গোসল ও কাফনের কাপড় পরিধান করানো হয়। পরে অ্যাম্বুলেন্সে করে দুপুরে তার লাশ নেত্রকোনায় পাঠাই।

এদিকে নেত্রকোনা স্বেচ্ছাসেবক টিমের সদস্য মো. সায়ন খান বলেন, ময়মনসিংহ থেকে টিম আলী ইউসুফ এর তত্ত্বাবধানে ফারজানা খানম মুক্তার লাশ নিয়ে এসে দুপুরে নেত্রকোনায় পৌঁছালে আমরা তার দাফন সম্পন্ন করি। গত ১০ দিন আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ করোনা ইউনিটে চিকিৎসা নেয়ার পর পূর্বধলা উপজেলার খলিশাপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে মারা যান ফারজানা খানমের স্বামী মাহফুজুর রহমান লিটনও।

তিনি আরো বলেন, স্বামীর মৃত্যুর সংবাদ স্ত্রীর কাছে গোপন রাখা হয়েছিল। কিন্তু আজকে সেই মৃত স্বামীর স্ত্রীও করোনায় প্রাণ হারালেন। মাহফুজ-ফারজানা দম্পতি নিঃসন্তান ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here