ঢাকায় সরকারি আট হাসপাতালে আইসিইউ খালি নেই

নিজস্ব প্রতিনিধিঃকরোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীদের চাপ বাড়ছে। এ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর করোনা বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঢাকার সরকারি ৮ হাসপাতালেই করোনা রোগীদের জন্য আইসিইউ (নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র) ফাঁকা নেই। একইসঙ্গে হাসপাতালে নির্ধারিত শয্যার চেয়ে অতিরিক্ত রোগী ভর্তি রয়েছেন।

অধিদপ্তর জানাচ্ছে, ১৭ হাসপাতালের মধ্যে তিনটি হাসপাতালে সাধারণ শয্যা থাকলেও আইসিইউ নেই। তিন হাসপাতালগুলো হচ্ছে সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস ও হাসপাতাল এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি হাসপাতাল। বাকি হাসপাতালগুলোর মধ্যে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের ২৬ আইসিইউ বেড, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের ১০ বেড, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের ১৬ বেড, সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের ছয় বেড, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২০ বেড, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ১০ বেড, টিবি হাসপাতালের চার বেড ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ বেডের সবগুলোতে রোগী ভর্তি।

অন্য হাসপাতালগুলোর মধ্যে মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২৫ বেডের মধ্যে একটি, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালের ১৫ বেডের মধ্যে দুইটি, জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের আট বেডের মধ্যে দুইটি, জাতীয় বক্ষব্যাধি ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের ১০ বেডের মধ্যে তিনটি, ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ২১২ বেডের মধ্যে ছয়টি আর পঙ্গু হাসপাতালের তিনটি বেডের মধ্যে তিনটি ফাঁকা রয়েছে।

অর্থাৎ, রাজধানী ঢাকার করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্ধারিত ১৭ হাসপাতালের ৩৮৫টি আইসিইউ বেডের মধ্যে ফাঁকা রয়েছে মাত্র ১৭টি।

অপরদিকে, সরকারি এই হাসপাতালগুলোর মধ্যে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের নির্ধারিত ১৬৯ বেডের বিপরীতে অতিরিক্ত রোগী ভর্তি আছেন একজন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের নির্ধারিত ২৭৫ বেডের বিপরীতে অতিরিক্ত ভর্তি আছেন ৭৭ জন আর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২৬৩ বেডের বিপরীতে অতিরিক্ত রোগী ভর্তি আছেন ৬৭ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here