মদ ও রিমান্ড নিয়ে যা বললেন পরীমনির আইনজীবী

বিনোদন ডেস্ক :রাজধানীর বনানী থানায় দায়ের করা মাদক মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমনির চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এমন ঘটনায় পরীমনি লজ্জিত বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী নীলঞ্জনা রিফাত সুরভি। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পরীমনিকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তাকে হাজির করা হয়।

এরপর বনানী থানার মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়ের করা মামলায় পরীমনিকে সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ সোহেল রানা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ আসামি পরীমনির চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন আব্দুল্লাহ আবু।

জামিন শুনানিতে পরীমনির আইনজীবী নীলঞ্জনা রিফাত সুরভি বলেন, পরীমনি স্বনামধন্য চিত্রনায়িকা। তাকে হয়রানি করার জন্য এ মামলা দেয়া হয়েছে। তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার। তার বাসায় কোনো মদ পাওয়া যায়নি।

আইনজীবী আরো বলেন, তার পরীমনির বাসা থেকে যে সাড়ে ১৮ লিটার মদ উদ্ধার দেখানো হয়েছে, তা তার বাসায় ছিল না। তার বাসায় কয়েকটি খালি মদের বোতল ছিল। সেগুলো ডেকোরেশন পিস হিসেবে রাখা ছিল। এগুলো উদ্ধার তালিকায় দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, তার কাছে কোনো আইস এবং এলএসডি ছিল না। আমরা তার জামিন চাই।

নীলঞ্জনা রিফাত সুরভি আদালতকে বলেন, এ মামলায় পরীমনিকে হয়রানির কারণ পেছনের একটি দ্বন্দ্ব। তার মানসম্মান নষ্টের জন্যেই এ মামলা। স্বনামধন্য একজন নায়িকার মানসম্মান যাতে ক্ষুন্ন না হয় সেজন্য রিমান্ড না মঞ্জুর করা প্রয়োজন। তাকে জামিন দেয়া উচিত।

রাজধানীর বনানী থানায় সন্ধ্যার দিকে পরীমনি ও আশরাফুল ইসলাম ওরফে দীপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। বুধবার রাজধানীর বনানী থেকে মাদকসহ পরীমনিকে আটক করে র‌্যাব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here