ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর হামলায় ১৪৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেফতার ২

শেরপুর প্রতিনিধি :শেরপুরের শ্রীবরদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের ওপর হামলার ঘটনায় ২১ জনের নাম উল্লেখসহ ১৪৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ওই উপজেলার বারারচর গ্রামের আব্দুর রেজ্জাকের ছেলে মনিরুজ্জামান ও জালাল উদ্দিনের ছেলে শহীদ মিয়া। বুধবার রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এর আগে, ওই রাতেই মামলা করেন শ্রীবরদীর ইউএনও অফিসের কর্মকর্তা কামরুজ্জামান।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেন শ্রীবরদী থানার ওসি বিল্পব কুমার বিশ্বাস।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, বুধবার দুপুরে চলমান কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমাণ আদালতের দুইজন ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা শ্রীবরদী উপজেলার ঝগড়ারচর বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন। ওই সময় কয়েকজন দোকান মালিক লকডাউন ভঙ্গ করায় ম্যাজিস্ট্রেট তাদের জরিমানা করেন। এতে ক্ষিপ্র হয়ে পোশাক ব্যবসায়ী লিটন মিয়া ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে অশালীন আচরণ করেন। পরে  আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এক সদস্য তাকে ধাক্কা দিলে তিনি মাটিতে পড়ে যান। ওই ঘটনা নিয়ে লিটন মিয়ার ভাই মাইকিং করে বাজারে লোকজন জড়ো করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ওপর হামলা চালায়। ওই সময় হামলাকারীদের ইট, পাটকেলের আঘাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাঁচ সদস্য আহত হন। ভাঙচুর করা হয় একটি সরকারি গাড়ি।

ঝগড়ারচর বাজার বনিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলমাছ আলী বলেন, লিটনের ভাই বিগন মিয়া ক্ষুদ্ধ হয়ে মাইকিং করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ওপর হামলা করে। এটি অন্যায় কাজ হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here