মেহেন্দিগঞ্জের ইতিহাসের পাতায় বীর মুক্তিযোদ্ধা হানিফ মিয়ার স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে নাম

 

মেহেন্দিগঞ্জ প্রতিনিধি:মেহেন্দিগঞ্জে দানশীলতার বিষয়টি আলোচিত হলে আমাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে , বীরমুক্তিযোদ্ধা এ্যাডঃ হাওলাদার মোহাম্মদ হানিফ মিয়ার কথা।
যার দান ও মহত্ত্ব ইতিহাস হয়ে থাকবে । মেহেন্দিগঞ্জের ইতিহাসের পাতায় তার নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে । তিনি শত প্রতিকূলতার মাঝে থেকেও নিয়মিতভাবে মানব কল্যাণে নিজেকে সদা ব্রত রেখেছিলেন ।
দান করার সময় ওনি কখনোই কোন স্বার্থের দিকে লক্ষ্য রাখে নি। বর্তমান সমাজে অনেকেই বলে থাকেন যে, “এ যুগে নাকি প্রকৃত দানশীল ব্যক্তি খুঁজে পাওয়া যায় না” । আবার অনেকেই সচরাচর বলে থাকেন যে, “বর্তমান সময়ে নাকি মানবতা বিলুপ্ত হয়ে গেছে”। কিন্তু আমি এই ভ্রান্ত ধারণার সাথে একমত পোষণ করি নাই । এখন নিশ্চয়ই ভাবছেন যে হয়তো অতি উৎসাহী হয়েই উপরোক্ত ধারণার সাথে দ্বিমত করছিলাম । প্রিয় পাঠকবৃন্দ আমি এমন একজন মানুষের জয়গান করবো যার কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানলে আপনি বা আপনারাও আমার সাথে একমত পোষণ করবেন এই বলে যে , আসলেই তিনি দানশীল মানুষ হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন” । তার জন্যই সমাজের অবহেলিত মানুষগুলো স্বপ্ন দেখেছিলো । তার জন্য দুঃখ ভারাক্রান্ত মানুষগুলো বেঁচে থাকার তীব্র ইচ্ছা প্রকাশ করতে সাহস পেয়েছিলো ।হ্যাঁ,প্রিয় পাঠকবৃন্দ; বলছিলাম মরহুম হাওলাদার মোহাম্মদ হানিফ মিয়ার কথা। দানশীল ব্যক্তিদের মধ্যে অগ্রগণ্য হিসেবে তিনি’ বিবেচিত হন । এই মহান মানুষটির আজ আমাদের মাঝে নেই, কিন্তু মানব কল্যানে রেখে গেছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ মসজিদ মাদরাসা। জীবনের অনেকটা সময় ঢাকার মাটিতে থাকলেও একটি বারের জন্যও ভুলে যাননি প্রিয় মাতৃভূমি মেহেন্দিগঞ্জের কথা । পরিবারবর্গ নিয়ে ঢাকায় বাস করলেও তিনি প্রতিবার ছুটে আসেন প্রিয় মাতৃভূমি মেহেন্দিগঞ্জের অবহেলিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে । এই মানুষটি কতো মানুষকে আর্থিকভাবে সাহায্য করছেন তার সঠিক হিসেব বের করা বড়ই কষ্টসাধ্য ব্যাপার । নীরবে নিভৃতে দান করে গেছেন তাঁর সামর্থ্য অনুযায়ী । মানুষের দুঃখ কষ্ট তিনি সহ্য করতে পারেন না । মানবতা ও সহমর্মিতার গাঢ় রঙে রাঙা এই মানুষটি নিঃস্বার্থভাবে মানুষের উপকার করেছেন। দয়ালু এই মানুষটির কৈশোর ও যৌবন থেকেই পরোপকারী ও দয়ালু হিসেবে পরিচিত ছিলেন। অসামান্য উদার ও দানশীল হিসেবে খ্যাত ছিলেন। সকলেই তার জন্য দোয়া করবেন আল্লাহ যেন তাকে জান্নাতবাসী করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here